• সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১

মাদক সাম্রাজ্যের শ্বশুর-জামাই

ক্রাইম রিপোর্টার

এক নজড়ে ইয়াবা পরিবার————,
শশুর কাদির মিয়া” পেশায় গাড়ি চালক। নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শ’ শয্যা হাসপাতালের এ্যাম্বুলেন্স চালাতেন। কাদির মিয়া এ্যাম্বুলেস্নের অপব্যবহার করে নিয়ে আসতো টেকনাফ থেকে মাদকের বিশাল চালান।
কথায় আছে “চোরের দশদিন আর পুলিশের একদিন” ঠিক তাই- টেকনাফ থেকে সরকারি এ্যাম্বুলেন্স এ করে নিয়ে আসা বিপুল পরিমান ইয়াবার চালানসহ পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয় কাদির। সেসময় হাসপাতাল কতৃপক্ষ কাদিরকে অবৈধ মাদক কারবারির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে চাকুরি থেকে বরখাস্ত করে দেয়। সূএটি জানিয়েছে ওই ঘটনার পর বেশ কিছুদিন গা’ঢাকাদেয় ইয়াবা পরিবার। এরপর মিরাজ হত্যা মামলার প্রধান আসামি ইয়বা’ মনিরের অবৈধ ব্যবসার হাল ধরে তার স্ত্রী ‘মিলি’।সূএটি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সূএ আরো জানায়. মনিরের স্ত্রী মিলি এখন টেকনাফ থেকে ইয়াবার বড়.বড় চালান এনেদেয়.আর মনির তার সাঙ্গোঁ পাঙ্গোদের নিয়ে। পশ্চিম তল্লা, চেয়ারম্যান বাড়ি, গুপ্তা, তল্লা গ্রিন রোড,কায়েমপুর, ফকির র্গামেন্টস এর তিন নম্বর গেইট, তিতুমির স্কুলের গলি।এ সমস্ত এলাকাগুলোতে দেদারসে চালাচ্ছে মাদকের ব্যবসা। সূএটি আরো জানায়, পেইট্টা মনির এক সময় পুরাতন তালাচাবি ও মেসলাইটে গ্যাস ভরেদেয়ার কাজ করতো বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় ঘুড়ে, ফিরে। তিন বেলা খাবার যোগার করতে পারেনি কোনদিনই। বর্তমানে মনির অবৈধ মাদকের টাকায়,বিশাল অট্রালিকা বানিয়েছে বন্দর থানার চিতাশাল এলাকায়। সূএে আরো জানাযায়,তিন তলা ভবনের ভিতরে আট লক্ষ টাকার টাইলস বসানো হয়েছে। আর তিনতলায় বানানো বিশেষ কামরা। যার দরজা বানানো হয়েছে মজবুত এস,এসদিয়ে। জানাযায় ওই এস,এস দরজা গ্রান্ডিং মেসিন দিয়ে কাটতে প্রায় তিন থেকে চার ঘন্টা সময়লেগে যাবে যেখানে রাখা হয়েছে মদ, গাজা, ফেন্সিডিল, ইয়াবা,এবং বিশেষ ব্যক্তিদের জন্য বিশেষ নারীদের ব্যবস্থা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনির নজড় এড়াতে ভবনটির ভিতরে বাহিরে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। আর ততখনে ইয়াবা মনির তার সকল অপকর্মের আলামত সড়াতে সক্ষম হবে বলে সূএ নিশ্চিত করেছে। একেতো মাদকের ব্যবসা তার উপর বিকল্প ধরনের কোন শেষ নেই॥

Read Previous

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়ন দাবি ইসলামি আন্দোলনের

Read Next

খেলাধূলা মনোবল শক্ত রাখে: টিটু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *