ফতুল্লায় আ’লীগ নেতা মোস্তফার বাড়িতে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২

নিজস্ব প্রতিবেদক
ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামালের বিল্ডিংয়ে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় কিশোরীর (১৬) প্রেমিক ও তার বন্ধুকে গ্রেপ্তার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে কিশোরীর পিতার দেয়া তথ্যনুযায়ী দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে মঙ্গলবার রাতে ফতুল্লার রামারবাগস্থ আওয়ামী লীগ মোস্তফা কামালের বিল্ডিংয়ের ৪র্থ তলায় এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। তবে, ঘটনা সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে দাবি মোস্তফার। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, মোস্তফা কামালের ভাড়াটিয়া নুর আলম (২৫) ও তার বন্ধু রাজু মিয়া (৩২)।

কিশোরীর অভিযোগ, সে স্থানীয় একটি স্পিনিং মিলে কাজ করে এবং নুরে আলম নামক একটা ছেলের সাথে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। সেই সূত্রে মঙ্গলবার দুপুরে নুরে আলমের সাথে দেখা করতে রামারবাগস্থ মোস্তফার বিল্ডিংয়ের ৪র্থ তলার ৪২১ নাম্বার রুমের ভাড়াটিয়া বাসায় যায়। সেখানে গেলে প্রেমিকের বন্ধুরা তাদেরে বিয়ে করিয়ে দেবার কথা বলে। টাকা সংগ্রহ করে নিয়ে আসার অজুহাতে নুরে আলম তাকে বন্ধুদের নিকট রেখে যায়। এক পর্যায়ে বিয়ে করিয়ে দেবার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এবং ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তাকে ধর্ষণ করে। রাত সাড়ে দশটার দিকে অভিযুক্তরা তাকে শিবু মার্কেটেস্থ বাসস্ট্যান্ডে রেখে চলে যায়।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার উপ-পরিদর্শক সুকান্ত দত্ত জানায়, ধর্ষণের বিষয়টি কিশোরী তার পিতাকে নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে থানায় এসে জানালে তৎক্ষনাৎ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত নুর আলম ও রাজুকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। ধর্ষণের ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।

Read Previous

নাসিম ওসমানের কবর জিয়ারতে জাতীয় তরুণ সমাজ নেতৃবৃন্দ

Read Next

দলীয় নেতা কর্মীদের আর্থিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি কম. সাইদের

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *